Job

বয়সঃ ২০ থেকে ২৮ বছর

শিক্ষাগত যোগ্যতাঃ এইচ এস সি – ইংরেজিতে দক্ষ হতে হবে।

বেতনঃ ৮০০০ টাঁকা মাত্র (পরবর্তিতে বৃদ্ধি হতে পারে)

অভিজ্ঞতাঃ কপমিউটার চালোনায় পারদর্শী হতে হবে । এস ই ও ও ডিজিটাল মার্কেটিং এ অভিজ্ঞতা থাকতে হবে। গুগল এডসেন্স সমন্ধে ধারনা থাকতে হবে। যাদের এই ব্যাপারে কোন অভিজ্ঞতা নেই, তারা একটি সর্ট কোর্স করতে পারেন। সি এম এস (ওয়ার্ডপ্রেস,জুমলা,ড্রুপল)+ বেসিং এস ই ও , এবং ডিজিটাল মার্কেটিং । কোর্স ফি ৭০০০ টাঁকা , কিন্তু চাকুরি প্রার্থীদের জন্য মাত্র ১৫০০ টাঁকা । এর মধ্যে আপনাকে আপনার কাজ হাতে কলমে বুঝিয়ে দেয়া হবে একটি সর্ট টাইম ট্রেনিং এর উপরে।

লোকেশনঃ বাংলাদেশের যে কোন স্থান ।


খুব সহজ এবং সিম্পল একটা জব। জবটি করতে, আপনাকে মিনিমাম এইচ এস সি পাশ হতে হবে। অবশ্য আপনি যদি ইংরেজিতে দক্ষ হন, তাহলে শিক্ষাগত যোগ্যতা শিথিল যোগ্য।

কি করতে হবে আপনাকেঃ

১ গুগল বা সার্চ ইঞ্জিনে সার্চ করতে পারে।
উদাহরনঃ আপনাকে একটা জব খুজতে হবে (ধরি, ওয়ার্ডপ্রেস জব)। এরপর সেই জবটি এডিট করতে হবে। এক কথায় – সেই লেখাটিকে ইউনিক করতে হবে (যা আগে কোথাও পোস্ট করা হয় নি)।

২ সেই জবটি এই ওয়েব সাইটে পোস্ট করতে হবে।
উদাহরনঃ আপনি গুগল থেকে একটি জব খুজে বেড় করলেন। যেমন- “ওয়ার্ডপ্রেস ডেভেলপার” এরপর সেটি কপি করে এডিট করবেন। জবটিকে যেন নতুন ভাবে দেখা যায়। তারপর সেই লেখাটি এই ওয়েব সাইটে পোস্ট করবেন।

৩ জব তো পোস্ট হলো- এবার সেটির মার্কেটিং করবেন। এর জন্য আপনাকে কিছু ওয়েবসাইট/ফোরাম খুজে বেড় করতে হবে। শর্ত, সেই ওয়েবসাইটের এলেক্সা র‍্যাঙ্ক মিনিমান ১ লক্ষ হতে হবে।
যেমনঃ আমি “ওয়েব ডিজাইনার” এর একটি জব সংগ্রহ করে এই ওয়েব সাইটে পোস্ট করলাম। ওহ… পোস্ট করার সময় “এপ্লিকেশন” লিঙ্ক এ সেই জবটির ঠিকানা বা ওয়েব এড্রেস দিতে হবে।
এরপর , আপনার জব পোস্ট অনুযায়ী – সেটি অন্য একটি ওয়েবসাইটে পোস্ট করতে হবে এবং ব্যাক লিংক বা এই ওয়েবসাইটে পোস্ট করা জব এর ঠিকানা/ওয়েব এড্রেস দিতে হবে। যেমন ” ওয়েব ডেভেলপার (ওয়ার্ডপ্রেস)” নামের একটি জব পোস্ট করলেন। এরপর সেটি – jobs.wordpress.net এ পুনরায় পোস্ট করবেন এবং লিঙ্ক দিবেন। আরো অনেক উপায় আছে, যেমন www.techtunes.co তে একটি একাউন্ট খুলেন। এরপর , জব রিলেটেড কিছু একটা লিখে লিঙ্ক শেয়ার করলেন! এরকম হাজার হাজার ওয়েব সাইট আছে। আপনাকেই সেগুলো খুজে বেড় করতে হবে।

৪ প্রতিদিন সর্বনিম্ন ১৫ টা পোস্ট করতে হবে। আপনি চাইলে, এর বেশিও করতে পারেন এবং তা অভারটাইম হিসেবে গন্য হবে।

৫ কাজ শেষে রিপোর্ট জমা দিতে হবে। একটি ওয়েব ফর্ম এর মাধ্যমে আপনাকে আপনার কাজ জমা দিতে হবে। এবং এই ফর্ম পুরনের সাথে সাথে আপনার একাউন্টে টাঁকা জমা হওয়া শুরু হবে।

৬ প্রতি মাসের এক থেকে ৭ তারিখের মধ্যে বেতন দেয়া হবে।

আবেদন করুনঃ এখানে ক্লিক করুন (ফেইস বুকে – আপনার শিক্ষাগত যোগ্যতা, আপনার নাম ঠিকানা, অভিজ্ঞতা, ট্রেনিং/সর্ট কোর্স এর প্রয়োজন আছে কিনা , এবং আবেদন সুন্দর ভাবে লিখে ফেইসবুক মেসেজ এর মাধ্যমে পাঠিয়ে দিন) বিঃ দ্রঃ শুধু হাই হ্যালো দিবেন না। একটি মেসেজ এ বিস্তারিত লিখুন।